Tuesday , 7 July 2020
Home » Networking

Networking

বিভিন্ন নেটওয়ার্ক ডিভাইস

বিভিন্ন নেটওয়ার্ক ডিভাইস

বিভিন্ন নেটওয়ার্ক ডিভাইস (বিভিন্ন নেটওয়ার্ক ডিভাইস) কম্পিউটার নেটওয়ার্ক গড়ে তােলার জন্য নেটওয়ার্ক মিডিয়া এবং কানেক্টরই যথেষ্ট নয়। মিডিয়া ও কানেক্টরের সাহায্যে গড়ে তোলা সেই নেটওয়ার্ক কে কার্যকর করে তোলার জন্য আরাে কিছু ডিভাইস দরকার। এসব ডিভাইসের মধ্যে আছে নেটওয়ার্ক ইন্টারফেস কার্ড, হাব বা কনসেনট্রেটর, রিপিটার, ব্রিজ, সুইচ, রাউটার, ইত্যাদি। ভালো নেটওয়ার্ক ডিজাইন ও নেটওয়ার্ক এডমিনিস্ট্রেশন এর জন্য এসব ডিভাইসের কাজ …

Read More »

বিভিন্ন নেটওয়ার্ক অপারেটিং সিস্টেম

বিভিন্ন নেটওয়ার্ক অপারেটিং সিস্টেম

বিভিন্ন নেটওয়ার্ক অপারেটিং সিস্টেম (বিভিন্ন নেটওয়ার্ক অপারেটিং সিস্টেম) নেটওয়ার্ক অপারেটিং সিস্টেমসমূহ প্রায় একইরকম সার্ভিস প্রদান করলেও আপনার জানা দরকার কোন নেটওয়ার্ক অপারেটিং সিস্টেম কখন দরকার হবে, কোনটির দূর্বলতা কী এবং কোন কাজের জন্য কোনটি ব্যবহৃত হয়। কোনাে কোনাে সার্ভার সফটঅয়্যার বেশ ভালাে সার্ভিস দেয় কিন্তু সেটি চালানাে খুবই কঠিন, যেমন ইউনিক্স আবার কোনাে অপারেটিং সিস্টেম চালানাে সহজ কিন’ খুব স্ট্যাবল …

Read More »

নেটওয়ার্ক মিডিয়া এবং কানেক্টর

নেটওয়ার্ক মিডিয়া এবং কানেক্টর

নেটওয়ার্ক মিডিয়া এবং কানেক্টর নেটওয়ার্ক মিডিয়া (নেটওয়ার্ক মিডিয়া এবং কানেক্টর ) নেটওয়ার্ক এক কম্পিউটার থেকে আরেক কম্পিউটারে ডাটা পরিবহনের জন্য কোন না কোনাে মাধ্যম দরকার। যে মাধ্যমে নেটওয়ার্কের ডিভাইসসমূহ সংযুক্ত থাকে তাকে বলা হয় নেটওয়ার্ক মিডিয়া। এই নেটওয়ার্ক মিডিয়ার মধ্য দিয়েই ডাটা প্রবাহিত হয় এবং এর উপর নেটওয়ার্কের পারফরম্যান্স অনেকাংশে নির্ভর করে। তাই নেটওয়ার্কের প্রয়ােজনানুসারে উপযুক্ত নেটওয়ার্ক মিডিয়া ব্যবহার করা …

Read More »

সিগন্যালিং ও ডাটা কমিউনিকেশন

সিগন্যালিং ও ডাটা কমিউনিকেশন

সিগন্যালিং ও ডাটা কমিউনিকেশন (সিগন্যালিং ও ডাটা কমিউনিকেশন) কম্পিউটার কমুনিকেশনে ফিজিক্যাল মিডিয়ার মধ্য দিয়ে ডাটা প্রবাহিত হয় ইলেকট্রিক্যাল সিগন্যাল হিসেবে। এই ইলেকট্রিক সিগন্যালের মাধ্যমে একটি কম্পিউটার অন্যান্য ডিভাইস, যেমন প্রিন্টারের সাথে সংযােগ গড়ে ও প্রিন্টারে প্রিন্ট পাঠায়। ইলেকট্রিক্যাল সিগন্যাল বিভিন্ন সাের্স থেকে বিভিন্নভাবে আসতে পারে, তবে এর মধ্যকার তথ্য একই হতে পারে। এ অধ্যায়ে আমরা বিভিন্ন ধরনের সিগন্যালিং, সিগন্যাল পরিমাপের …

Read More »

আর্কনেট যেভাবে কাজ করে

আর্কনেট যেভাবে কাজ করে

আর্কনেট যেভাবে কাজ করে আর্কনেট (আর্কনেট যেভাবে কাজ করে) এটাচ রিসোর্স কম্পিউটার নেটওয়ার্ক (ARCNet) হলাে এ পর্যন্ত আলােচিত সবচেয়ে পুরাতন নেটওয়ার্ক আর্কিটেকচার। ১৯৭৭ সালে ডাটাপয়েন্ট কর্পোরেশন এটি তৈরি করে। আইবিএম টোকেন রিং আর্কিটেকচার তৈরির আগেই এই আর্কনেটের জন্ম। আর্কনেটের নভেল ভার্সন হলাে আরএক্স- নেট (RX-Net), এবং এরই আরেকটি ভার্সন হলাে TRX-Net। যেভাবে কাজ করে আকনেট ঢোকেন পাসিং মেথড ব্যবহার করে, …

Read More »

এপলক-লোকালটক-ইথারনেট-টোকেনটক ও জোন

এপলক, লোকালটক, ইথারনেট, টোকেনটক ও জোন

এপলক-লোকালটক-ইথারনেট-টোকেনটক ও জোন এপলক (এপলক-লোকালটক-ইথারনেট-টোকেনটক ও জোন) ম্যাকিন্টশ কম্পিউটার নিয়ে গড়ে ওঠা নেটওয়ার্কে এই এপলটক নেটওয়ার্ক টেকনােলজি ব্যবহার করা হয়। খুবই সাধারণ একটি ক্যাবলিং স্কীমের উপর ভিত্তি করে এপল ম্যাকিন্টশ কম্পিউটার নিয়ে যাতে ছােটখাটো নেটওয়ার্ক গড়া যায় সেজন্য ১৯৮৩ সালে এপলটক আর্কিটেকচার গড়ে ওঠে। এই এপলটককে আবার কয়েকটি ভাগে ভাগ করা যেতে পারে। এখানে আমরা সেসব নেটওয়ার্ক সম্পর্কে সংক্ষেপে জানব। …

Read More »

এসিনক্রোনাস ট্রান্সফার মোড (ATM)

এসিনক্রোনাস ট্রান্সফার মোড (ATM)

এসিনক্রোনাস ট্রান্সফার মোড ( এসিনক্রোনাস ট্রান্সফার মোড (ATM) )ওয়াইড এরিয়া নেটওয়ার্ক ও নেটওয়ার্ক ব্যাকবোন এসিনক্রোনাস ট্রান্সফার মোড বা ATM প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়ছে। তিন ধরনের নেটওয়ার্ক ট্রাফিকের জন্য ATM উপযুক্ত: অডিও, ভিডিও এবং ডাটা। এটি একটি উচ্চাভি নেটওয়ার্ক যা ফাইবার অপটিক কিংবা ক্যাটাগরি ৫ UTP ক্যাবল ব্যবহার করে। এটি একটি পয়েন্ট টু পয়েন্ট সুইচড নেটওয়ার্ক। এখানে সুইচিং ডিভাইস যুক্ত থাকে স্টেশনগুলির …

Read More »

ফাইবার ডিস্ট্রিবিউটেড ডাটা ইন্টারফেস (FDDI)

ফাইবার ডিস্ট্রিবিউটেড ডাটা ইন্টারফেস (FDDI) ( ফাইবার ডিস্ট্রিবিউটেড ডাটা ইন্টারফেস (FDDI) )১৯৮২ সালে বিভিন্ন স্ট্যান্ডার্ডাইজেশন সংস্থা (বিশেষ করে ANSI) এবং ভেন্ডররা ফাইবার অপটিক ডাটা ইন্টারফেস তৈরির কাজে লাগেন। এটি শুরুর পেছনে কারণ সবাই চাচ্ছিল একটি দ্রুতগতির লােকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক তৈরির পদ্ধতি। ১৯৯০ সালে এটি ANSI X3 স্ট্যান্ডার্ডে পরিণত হলাে। এটি টোকেন রিং নেটওয়ার্কের মতােই টোকেন পাসিং ব্যবহার করে কিন্তু এটি …

Read More »
Translate »